৪০ ডিগ্রিতে উঠেছে তাপমাত্রা, এবার বৃষ্টির সম্ভাবনা

চুয়াডাঙ্গায় শনিবার (৬ এপ্রিল) দেশের ও এই মৌসুমের সর্বোচ্চ ৪০.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে। টানা কয়েকদিনের গরমে জনজীবন দুর্বিষহ হয়ে পড়ছে। আবহাওয়া অধিদপ্তর জানায় শনিবার দিনের তাপমাত্রা ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত বেড়ে গরম তীব্র আকার ধারণ করতে পারে। আরও বিস্তৃত হতে পারে তাপপ্রবাহের আওতা।

এরই মধ্যে গরমে সারাদেশে জনজীবনে নাভিশ্বাস উঠেছে। গরমে কষ্ট পাচ্ছে মানুষ। ভোগান্তি বাড়িয়ে দিচ্ছে বাতাসে জলীয় বাষ্পের আধিক্য। তবে ঝড়-বৃষ্টি বেড়ে রোববার থেকে তাপমাত্রা কিছুটা কমতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

শনিবার সকাল থেকে ঢাকার আকাশ কিছুটা মেঘলা। ভ্যাপসা গরমে অতিষ্ঠ নগর জীবন। তবে সিলেট অঞ্চলে গত কয়েকদিন ধরেই বৃষ্টি হচ্ছে। শুক্রবার সিলেটে ৪২ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া বিভাগ।

শনিবার সকাল ৯টা থেকে আগামী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাস তুলে ধরে আবহাওয়াবিদ মো. ওমর ফারুক জানান, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে, সেই সঙ্গে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টি হতে পারে। এছাড়া দেশের অন্যত্র অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া প্রধানত শুষ্ক থাকতে পারে। এ সময়ে সারাদেশে দিনের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস বাড়তে পারে এবং রাতের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে।

বাগেরহাট, কুষ্টিয়া ও চুয়াডাঙ্গা জেলাসহ রাজশাহী বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের তাপপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে এবং তা বিস্তার লাভ করতে পারে। জলীয় বাষ্পের আধিক্যের কারণে অস্বস্তি অব্যাহত থাকতে পারে বলেও জানান এ আবহাওয়াবিদ।

রোববার রাজশাহী, ঢাকা, ময়মনসিংহ, খুলনা, চট্টগ্রাম ও সিলেট বিভাগের দু’এক জায়গায় অস্থায়ী দমকা বা ঝোড়ো হাওয়াসহ বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে, সেই সঙ্গে কোথাও কোথাও বিক্ষিপ্তভাবে শিলা বৃষ্টি হতে পারে। সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পারে।

সোমবারও বৃষ্টি থাকতে পারে এবং সারাদেশে দিন এবং রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস কমতে পারে। তবে পরবর্তী পাঁচ দিনে তাপমাত্রা বাড়তে পারে বলে পূর্বাভাসে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।