বিশ্ববিদ্যালয়ে ইফতারের ওপর কর্তৃপক্ষের নিষেধাজ্ঞা, প্রতিবাদে গণইফতার কর্মসূচি পালন ছাত্র-ছাত্রীদের।

এবার শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (শাবিপ্রবি) এবং নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে ( নোবিপ্রবি) ইফতার পার্টির ওপর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের নিষেধাজ্ঞার প্রতিবাদে গণইফতার কর্মসূচি পালন করেছেন জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা। আজ মঙ্গলবার (১২ মার্চ) রমজানের প্রথম দিন বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে এ কর্মসূচি পালন করা হয়।

এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী শিহাব বলেন, দেশের দুইটি বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন তাদের ক্যাম্পাসে বাঙালির হাজার বছরের ঐতিহ্য ইফতার পার্টি নিষিদ্ধ করেছে। তারা দেশ থেকে ইসলামি সংস্কৃতিগুলো বাদ দিতে পাঁয়তারা করছে। আমরা তার প্রতিবাদ জানিয়ে সাধারণ শিক্ষার্থীরা এ গণইফতার কর্মসূচি পালন করেছি। আমরা ওই দুইটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনকে বলব, তারা যেন তাদের আদেশ প্রত্যাহার করে নেয়। আরও আশা করি আর কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন যেন এ ধরনের সিদ্ধান্ত না নেয়।

ইফতারে অংশ নেওয়া সৌরভ নামের এক সনাতন ধর্মাবলম্বী শিক্ষার্থী বলেন, আমি প্রতি বছরই রমজানে বন্ধুদের সাথে ইফতার করি। আমি মনে করি একটি অসাম্প্রদায়িক মনোভাব প্রকাশ করার অন্যতম একটি মাধ্যম হচ্ছে ধর্মীয় রীতিনীতি সাথে নিজেদের সম্পৃক্ত রাখা।

এর আগে, বাদ জোহর দুই বিশ্ববিদ্যালয়ে ইফতার বন্ধের প্রতিবাদে সাধারণ শিক্ষার্থীরা একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। তবে প্রশাসনের অনুমতি না থাকায় সংক্ষিপ্তভাবে কর্মসূচি পালন করেন তারা।