স্কুল শিক্ষকের চেয়ার সম্মানে ছেড়ে দিলেন শিক্ষা কর্মকর্তা

শিক্ষক শব্দটি শুনলেই শ্রদ্ধায় ভরপুর হয়ে যায় প্রত্যেকটি মানুষের হৃদয়। সে যেকোনো পর্যায়ের বড় মাপের অফিসার হোক না কেনো শিক্ষকের প্রতি সম্মান করতে ভুলে যান না প্রকৃত শিক্ষিতরা। এমনই একটি ঘটনা ঘটেছে কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী উপজেলার আচমিতা ইউনিয়নের ১০০ নং পূর্ব চারিপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে।

৫ মার্চ মঙ্গলবার বিকেল ৪টার দিকে বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি করা হয় উপজেলা শিক্ষা অফিসার মো. আফজাল হোসেনকে।তিনি প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য দেওয়ার শুরুতেই এক ব্যতিক্রমী কাণ্ড ঘটিয়ে বসলেন। নিজের জন্য নির্ধারিত চেয়ার ছেড়ে দিয়ে বিদ্যালয়টির সহকারি শিক্ষক মো. নাজমুল ইসলামকে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ঘোষণা দিয়ে তার চেয়ারে এসে বসার আহ্বান জানান।

এ সময় সহকারী শিক্ষক নাজমুল ইসলামসহ উপস্থিত শতশত মানুষজন বিস্মিত হয়ে যায়। তিনি এ সময় বলেন, “আমি আজকের প্রধান অতিথি নই, আজকের প্রধান অতিথি বিদ্যায়টির সহকারি প্রধান শিক্ষক নাজমুল ইসলাম। কারণ আজকে তার কর্মজীবনের সমাপ্তি হতে চলছে। তাকে বিদায়ী সংবর্ধনা দেওয়ার জন্যই এ অনুষ্ঠানটি আয়োজন করা হয়েছে।”

বিদ্যালয়টির সহকারি শিক্ষক মো. নাজমুল ইসলামের অবসরজনিত কারণে পরিচালনা কমিটি, শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীর পক্ষ থেকে বিদায়ী সংবর্ধনার জন্য অনুষ্ঠানটির আয়োজন করা হয়। এ সময় সদ্য অবসরে যাওয়া শিক্ষক নাজমুল ইসলামকে ফুলের মালা ও বিভিন্ন উপহার সামগ্রী প্রদান করা হয়।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সহকারি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা নাছিরুল হক, উপজেলা রিসোর্স সেন্টারের ইন্সট্রাক্টর শাহজাহান কবির ভূঁইয়া, উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি আবু সাঈদ মো. ইকবাল , বিদ্যালয়টির প্রধান শিক্ষক আসাদুজ্জামান প্রমুখ।

এইভাবেই সম্মান নিয়ে বেচে থাকুক প্রতিটি শিক্ষক। নিউজটি শেয়ার দিয়ে সবাইকে জানার সুযোগ করে দিন।