কি হলো ফেসবুকের? হঠাৎ বন্ধ হওয়া কিসের ইঙ্গিত? জানুন বিস্তারিত!

বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে, কোনো সতর্কবার্তা ছাড়াই ফেসবুক অ্যাকাউন্ট বন্ধ করে দেওয়ার অভিযোগ তুলেছেন ব্যবহারকারীরা।তাদের অভিযোগ, অ্যাকউন্ট বন্ধ হওয়ার আগে তারা কোনো সতর্ক বার্তাও পাননি। কোন অভিযোগে অ্যাকাউন্টগুলো বন্ধ করা হয়েছে তাও জানায়নি ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

জানা গেছে, বন্ধ করা অ্যাকাউন্টগুলোয় প্রবেশের চেষ্টা করলেই পর্দায় দেখা যায় একটি বার্তা। ফেসবুকের পাঠানো বার্তায় লেখা রয়েছে, ‘আমাদের কমিউনিটি মান অনুসরণ না করায় আপনার অ্যাকাউন্টটি নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে।’

অনেকে আবার অ্যাকাউন্টে প্রবেশ করতে পারলেও কোনো তথ্য বা ছবি পোস্ট করতে পারছেন না। এমনকি বন্ধুদের দেওয়া পোস্টে মন্তব্যও করতে পারছেন না।

সাধারণত ফেসবুকের নীতিমালা ভেঙে বার্তা, ছবি, ভিডিও বা মন্তব্য পোস্ট করলে ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্ট সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়। এ অবস্থায় সমস্যার কারণ জানিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ। রাউটারগুলোতে ত্রুটিপূর্ণ কনফিগারেশন পরিবর্তনকে সমস্যার মূল কারণ বলে দাবি করছে তারা।

এক পোস্টে ফেসবুক জানিয়েছে, সমস্যার সমাধান করতে গিয়ে আমাদের ইঞ্জিনিয়ারিং দল জানতে পেরেছে যে, ব্যাকবোন রাউটারে কনফিগারেশন পরিবর্তনের কারণে এমনটি হয়েছে, যা আমাদের ডেটা সেন্টারের মধ্যে নেটওয়ার্ক ট্র্যাফিককে সমন্বয় করে।

সাময়িক এই সংকটে ৬ বিলিয়ন মার্কিন ডলার ক্ষতি হয়েছে ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জাকারবার্গের। বাংলাদেশি মুদ্রায় যার পরিমাণ ৫১ হাজার ৪১২ কোটি টাকারও বেশি। এছাড়া শেয়ার বাজারেও ক্ষতির মুখে পড়তে হয়েছে ফেসবুককে।

সমস্যা সমাধানের পর সবার কাছে ক্ষমা চেয়েছেন জাকারবার্গ। ফেসবুকে এক পোস্টে তিনি বলেন, ফেসবুক, ইনস্টাগ্রাম, হোয়াটসঅ্যাপ এবং মেসেঞ্জার এখন অনলাইনে ফিরে এসেছে। আজকের এই সমস্যার জন্য দুখিত। আমি জানি যে আপনি আমাদের যত্নশীল ব্যক্তিদের সাথে সংযুক্ত থাকার জন্য আমাদের পরিষেবার উপর কতটা নির্ভর করেন।

ইত্তেফাক/টিআর