মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে স্ত্রীকে তালাক দিলেন আওয়ামী লীগ নেতা, দেখুন ভিডিও সহ বিস্তারিত

ভিডিও লিংক নিচে দেয়া হলঃ

বউ তালাকের ঘটনা শোনা যায়। কিন্তু এবার ব্যতিক্রমী এক বউ তালাকের ঘটনা ঘটেছে জামালপুরের মেলান্দহে। জাকির হোসেন (৩৫) নামে এক আওয়ামী লীগ নেতা মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে তার স্ত্রীকে তালাক দিয়েছেন।

গত মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) উপজেলার চরবাণীপাকুরিয়া ইউনিয়নের রান্ধুণীগাছা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। জাকির হোসেন চরবাণিপাকুরিয়া ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক।

স্থানীয়রা জানান, জাকির আগে কয়েকবার তার স্ত্রীকে মৌখিকভাবে তালাক দিলেও বিষয়টি কেউ আমলে নেননি। তাই শেষ পর্যন্ত তিনি মসজিদের মাইকে ঘোষণা দিয়ে স্ত্রীকে তালাকের সিদ্ধান্ত নেন। ঘটনার দিন আছরের নামাজ শেষ করে মুসল্লিরা মসজিদ থেকে বের হলে জাকির মসজিদে ঢুকে মাইকে সবার দৃষ্টি আকর্ষণ করে নিজের স্ত্রীকে তালাক দেন। মাইকে ঘোষণা দেওয়ার পরই টিকটক ভিডিও বানিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে দেন তিনি নিজেই। এরপরই শুরু হয় নানা আলোচনা-সমালোচনা।

জাকির হোসেন বলেন, তার স্ত্রী ঝগড়াটে। বাড়িতে এসে না থাকায় তাকে তালাক দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। শরীয়ত মোতাবেকই তালাক দিয়েছেন। এর আগে তালাক দিলেও তার বউ শিখা বেগম চলে আসায় এবার সবাইকে জানানোর জন্যই তার মাইকিং করা। মাইকিং করার পর সে ৩ কেজি গরু দুধ দিয়ে গোসল করেন। কিছু দিনের মধ্যে আদালতের মাধ্যমে তালাকের নোটিশ পাঠাবেন।

জাকির হোসেনের স্ত্রী শিখা বলেন, ১০ বছর আগে বিয়ে হয়েছে তাদের। তাদের ঘরে দুটি সন্তান রয়েছে। জাকির হোসেন এর আগেও বেশ কয়েকটি বিয়ে করেছেন। শিখা বেগম জাকিরের পঞ্চম স্ত্রী। তিনি টিকটকে গান করেন যা ভাইরাল হয় না। তাই ভাইরাল হওয়ার জন্যই মসজিদের মাইকে স্ত্রীকে তালাক দেওয়ার কথা ঘোষণা করে তা ফেসবুকে দিয়েছেন। এছাড়াও তিনি একজন মাদকাসক্ত ও মাদক বিক্রেতা।

এ ঘটনায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ এলাকায় নানা আলোচনা-সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। জাকির ও শিখার তালাকের বিষয়টি দ্রুত আইনিভাবে নিষ্পত্তির মাধ্যমে সমাধানের দাবি জানান এলাকাবাসী।

ভিডিও লিংকঃ https://www.youtube.com/watch?v=MU3BQz8EjuY