ঘণ্টায় দুইবার মি”লন করলে কি হয়?

দুইবার যৌ”ন মি”ল”ন করলে সন্তান ধারণের সম্ভাবনা বেড়ে যায় বলে দাবি করা হয়েছে নতুন এক গবেষণায়। লন্ডনের নর্থ মিডলসে”ক্স হাসপাতালে ৭৩ জন নারীর উপর গবেষণা চালিয়ে এ তথ্য পেয়েছেন গবেষকরা। তাদের দাবি, দুইবার যৌ”ন মি”ল”ন সাধারণের তুলনায় সন্তান ধারণের…

সম্ভাবনা বাড়ায় তিনগুণ। ইউরোপিয়ান সোসাইটি অব হিউম্যান রিপ্রোডাকশন এন্ড এমব্রয়লজি’র বাৎসরিক বৈঠকে তুলে ধরা হয়েছে এ তথ্য। গবেষণার প্রধান লেখক গোলাম বাহাদুর বলেন, ‘গ”র্ভধ”রণের ক্ষেত্রে এটা খুবই বড় একটা অগ্রগতি এবং এটা গ”র্ভধা”রণের সম্ভাবনাকে বৃদ্ধি করবে।

গবেষণায় বলা হয়, যে সমস্ত নারীরা সহজে গ”র্ভব”তী হতে পারেন না, অথবা যাঁদের উদর স্বাভাবিকের তুলনায় ভ”ঙ্গুর হয়ে থাকে তাঁরা ঘণ্টায় দুবার যৌ”ন মি”ল”ন করলে খুব সহজেই গ”র্ভবতী হতে পারেন। এছাড়া দুবারের বার যে শু”ক্রা”ণু নির্গত হয় তা প্রথমবারের থেকে অনেক বেশি শক্তিশালী হয় বলে এতে সন্তান সম্ভাবনার পরিমাণ অনেক বেড়ে যায়। বাচ্চাও যথেষ্ট হৃষ্টপুষ্ট হয়ে থাকে। গর্ভাবস্থায় ভ্রুণের নষ্ট হওয়ার সম্ভাবনাও কমে যায়।

সন্তানপ্রার্থী যুগলদের ডাক্তাররা তাই নিয়মিত যৌ”নমি”লনের পরামর্শ দিচ্ছেন।”গর্ভবতী হওয়ার জন্য মহিলাদের প্রয়োজন সঙ্গীর সঙ্গে নিয়মিত যৌ”নমি”লন। এমনকি তথাকথিত ‘নন ফার্টাইল পিরিয়ড’-য় যৌ”নমি”লন আবশ্যিক। যদিও কীভাবে এটি কাজ করে তা এখনও পরিস্কার নয়।

” জানিয়েছেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইন্ডিয়ানা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক টিয়েরনি লরেন্স।তিনি জানিয়েছেন ”যৌ”নমি”লন গ”র্ভধা’রণের জন্য মহিলাদের শরীরের অন্যক্রমতা বৃদ্ধি করে। এই ধরণের গবেষণা এই প্রথম।” ফার্টাইল পিরিয়ড ছাড়াও অন্য সময়ের যৌ”ন মি”ল”ন কীভাবে ফার্টিলিটি বৃদ্ধি করে সেই পুরোনো ধাঁধার নয়া উত্তর এই গবেষণা।